অজস্র সমাধানে মধু

4

মধু একটি খুব উপকারী খাদ্য, পন্য ও ঔষধ। জন্মের পর নানা দাদীরা মুখে মধু দেয় নাই এমন লোক খুঁজে পাওয়া কঠিন। প্রাচীনকাল থেকে মানুষ প্রাকৃতিক খাদ্য হিসেবে, মিষ্টি হিসেবে, চিকিৎসা ও সৌন্দর্য চর্চা সহ নানাভাবে মধুর ব্যবহার করে আসছে। শরীরের সুস্থতায় মধুর উপকারিতা অনেক।

* আপনার পালনকর্তা মৌমাছিকে আদেশ দিলেনঃ পাহাড়ে, গাছে এবং উঁচু চালে গৃহ তৈরী কর, এরপর সর্বপ্রকার ফল থেকে ভক্ষণ কর এবং আপন পালনকর্তার উম্মুক্ত পথ সমূহে চলমান হও। তার পেট থেকে বিভিন্ন রঙে পানীয় নির্গত হয়। তাতে মানুষের জন্যে রয়েছে রোগের প্রতিকার। নিশ্চয় এতে চিন্তাশীল সম্প্রদায়ের জন্যে নিদর্শন রয়েছে। সূরা আন-নাহল(১৬), আয়াতঃ ৬৮-৬৯

* প্রিয়নবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেন, ‘মধুতে আরোগ্য নিহিত আছে।’  (সহীহ বুখারি: ৫২৪৮)।

* আয়েশা (রা.) বলেন, প্রিয়নবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) এর কাছে মধু ও মিষ্টান্ন খুব প্রিয় ছিল।  (সহীহ বুখারি: ৫২৫০)।

* রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেন, ‘যে ব্যক্তি প্রতি মাসে তিন দিন সকালে মধু চেটে খাবে, তার বড় ধরনের কোনো রোগ হবে না।’ (ইবনে মাজাহ : ৩৪৪১)।

মধুর উপকারিতাঃ

মধুর উপকারিতার কথা লিখে শেষ করা যাবে না। মধুর নানাবিধ উপকারিতা নিম্নে প্রদত্ত হল,

* শক্তি প্রদায়ী * হজমে সহায়তা * কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে * রক্তশূন্যতায় * ফুসফুসের যাবতীয় রোগ ও শ্বাসকষ্ট নিরাময়ে । * অনিদ্রায় ।

* যৌন দুর্বলতায় । * প্রশান্তিদায়ক পানীয় । * মুখগহ্বরের স্বাস্থ্য রক্ষায় । * পাকস্থলীর সুস্থতায় । * দেহে তাপ উৎপাদনে ।

* পানিশূন্যতায়  । * দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে । * রূপচর্চায়। * ওজন কমাতে । * হজমে সহায়তা । * গলার স্বর । * তারুণ্য বজায় রাখতে ।

* হাড় ও দাঁত গঠনে । * রক্তশূন্যতা ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে। * আমাশয় এবং পেটের পীড়া নিরময়ে।

* হাঁপানি রোধে । * উচ্চ রক্তচাপ কমায় । * রক্ত পরিষ্কারক ।

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Shop By Department